করোনাভাইরাস

একদিনে করোনা নতুন রেকর্ড সৃষ্টি শনাক্ত ১১৫২৫, আরও ১৬৩ জনের মৃত্যু

দেশে একদিনে করোনা শনাক্তে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। আগের দিনের রেকর্ড ভেঙে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ৫২৫ জন শনাক্ত হয়েছেন। আগের দিন শনাক্ত হয়েছিল ৯ হাজার ৯৬৪ জন। সরকারি হিসাবে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত ৯ লাখ ৬৬ হাজার ৪০৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫ হাজার ৩৯২ জনে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৪৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৪৩৩ জন এবং এখন পর্যন্ত ৮ লাখ ৪৪ হাজার ৫১৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আজ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে আরও জানানো হয়, ৬০৫টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৮ হাজার ৩৯টি নমুনা সংগ্রহ এবং ৩৬ হাজার ৬৩১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৬৭ লাখ ৯৪ হাজার ১৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৪৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৭ দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৯ শতাংশ।
এদিকে বিভাগ ভিত্তিক শনাক্তের হার বিশ্লেষণে দেখা যায়, দেশের মোট শনাক্তের ৪৪ দশমিক ১১ শতাংশ রোগী রয়েছেন ঢাকা বিভাগে। গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে মারা গেছেন ৪৫ জন। শনাক্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৯৭ জন। এই বিভাগে শনাক্তের হার ৩১ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। এই বিভাগে একদিনে রোগী বেড়েছে প্রায় ৫ শতাংশ। ঢাকা জেলায় (মহানগরসহ) শনাক্তের হার ২৮ দশমিক ২৩ শতাংশ। মারা গেছে ১৬ জন।

ময়মনসিংহ বিভাগে মারা গেছেন ৫ জন। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩৩৪ জন। শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ। চট্টগ্রামে মারা গেছেন ২৪ জন। এ বিভাগে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৫৪০ জন। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৭৮ শতাংশ। রাজশাহীতে মারা গেছেন ২৪ জন। শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ২২৫ জন। শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ২৮ শতাংশ। রংপুর বিভাগে মারা গেছেন ১১ জন। শনাক্তের সংখ্যা ৬১৮ জন। শনাক্তের হার ৩৬ শতাংশ দশমিক ৭৬ শতাংশ। খুলনা বিভাগে মারা গেছেন ৪৬ জন। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৮৬৫ জন। শনাক্তের হার ৩৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ। বরিশাল বিভাগে মারা গেছেন ৬ জন। শনাক্তের সংখ্যা ৪৫৯ জন। শনাক্তের হার ৫২ দশমিক ৫১ শতাংশ। একই সময়ে সিলেট বিভাগে মারা গেছেন ২ জন। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩৮৭ জন। শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৪০ শতাংশ।

সম্পর্কিত

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button