বিশ্ব

বাগদাদে সৌদি ও ইরানি কর্মকর্তাদের বৈঠক

ইরাকের রাজধানী বাগদাদে সৌদি আরব ও ইরানের কর্মকর্তাদের মধ্যে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় পাঁচ বছর দুই দেশের পরস্পরের সাথে কূটনীতিক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন রাখার পর সম্পর্ক পুনরুদ্ধারের প্রচেষ্টায় এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে রোববার খবর জানায় ব্রিটেনভিত্তিক বাণিজ্য বিষয়ক পত্রিকা ফিনান্সিয়াল টাইমস।
খবরে বলা হয়, গত ৯ এপ্রিল বাগদাদে দুই দেশের প্রতিনিধি দলের মধ্যে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ইয়েমেনে চলমান গৃহযুদ্ধের সমাপ্তির বিষয়েও আলোচনা করা হয়।
আলোচনায় সৌদি আরবের গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান খালিদ বিন আলী আল-হুমাইদান সৌদি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। আগামী সপ্তাহে দ্বিতীয় দফায় দুই দেশের মধ্যে আলোচনা অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে বলে খবরে জানানো হয়।
তবে সৌদি দৈনিক আরব নিউজে দেশটির এক সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানানো হয়, ইরানের সাথে সৌদি আরবের এমন কোনো আলোচনাই অনুষ্ঠিত হয়নি। অপরদিকে ইরাক ও ইরানি কর্তৃপক্ষও এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি।
ফিনান্সিয়াল টাইমসের খবরে জানানো হয়, সিনিয়র এক ইরাকি সরকারি কর্মকর্তা ও বিদেশী এক কূটনীতিক দুই দেশের মধ্যে বাগদাদে অনুষ্ঠিত এই বৈঠক নিশ্চিত করেছেন।
ইরাকি ওই কর্মকর্তা জানান, বাগদাদ ইরানের সাথে একইভাবে মিসর ও জর্দানের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠায় সংযোগ হিসেবে কাজ করবে।
তিনি বলেন, ইরাকি প্রধানমন্ত্রী আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বী শক্তিগুলোর মধ্যে ইরাককে সংযোগকারী হিসেবে পরিণত করতে ব্যক্তিগতভাবে আকাঙ্ক্ষী।
২০১৬ সালে সৌদি আরবে দেশটির শিয়া নেতা শেখ নিমর আল-নিমরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রতিবাদে ইরানের রাজধানী তেহরানে সৌদি দূতাবাস ঘিরে বিক্ষোভ করা হয়। পরে বিক্ষুব্ধ প্রতিবাদকারীরা দূতাবাসে ঢুকে তাণ্ডব চালায় ও আগুন লাগিয়ে দেয়। দূতাবাসে হামলার পর সৌদি আরব ও ইরান দুই দেশই পরস্পরের মধ্যে কূটনীতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে।
সূত্র : আলজাজিরা ও ফিনন্সিয়াল টাইমস

সম্পর্কিত

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button